আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে হরতাল/ধর্মঘট ডাকা কেন বে-আইনি হবেনা মর্মে হাইকোর্টের রুল

আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে হরতাল/ধর্মঘট ডাকা কেন বে-আইনি হবেনা মর্মে হাইকোর্টের রুল

দূর্ঘটনার মামলার পরপর ২টি মামলায় জমির ও মীর হোসেন এর সাজা ঘোষণার পর খুলনাসহ সারাদেশে উক্ত রায় এর প্রতিবাদে পরিবহন ধর্মঘট ডাকায় জনগণের ভোগান্তি চরম পর্যায় পৌছালে তা বন্ধে জনস্বাথে HRPB আজ একটি রীট পিটিশন দায়ের করে। বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন এবং বিচারপতি মোঃ আতাউর রহমান খান এর আদালতে পিটিশনারদের পক্ষে এডভোকেট মনজিল মোরসেদ সকালে রীট মামলাটি জরুরি বিবেচনায় আজ শুনানীর জন্য আবেদন জানালে শুনানীর জন্য সাপ্লিমেন্টারি লিষ্ট করেন এবং

শুনানীতে বাদী পক্ষের কৌসুলি এডভোকেট মনজিল মোরসেদ বলেন কোন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে সংযুক্ত ব্যক্তি আপিল করে প্রতিকার পেতে পারেন কিন্তু তা না করে কোর্টের রায় এর বিরুদ্ধে কতিপয় সংগঠন পরিবহন ধর্মঘট আহবান করে এবং রাস্তাঘাট জোরপূর্বক জনগণের চলাচলকে বিঘিœত করছে যা সম্পূর্ণ বে-আইনি ও সংবিধান পরিপন্থি। এভাবে বিচারের রায়ের বিরুদ্ধে পরিবহন ধর্মঘট বিচার প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ এবং ধর্মঘটের মার্ধ্যমে সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৩৬ এর স্বাধীন চলাচলের অধিকার ক্ষুন্ন করেছে। এমনকি এ ধরনের ধর্মঘটে জনমনে বিচার বিভাগ সম্পর্কে বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হতে পারে।

আদালত শুনানী শেষে কোটের রায়ের বিরুদ্ধে হরতাল/ধর্মঘট ডাকা কেন অবৈধ ও বে-আইনী ঘোষণা করা হবেনা তা জানতে সপ্তাহের রুল জারি করেছেন। বাদীরা হলেন এডভোকেট মোঃ ছারওয়ার আহাদ চৌধুরি, এডভোকেট মামুন আলিম ও এডভোকেট মোঃ মাহবুবুল ইসলাম। বিবাদীরা হলেন সড়ক ও সেতু বিভাগের সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, BRTC ও BRTA এর চেয়ারম্যান, IGP ও DG RAB,খুলনা, ঢাকা, রাজশাহী, বরিশাল রংপুর, চট্টগ্রাম, সিলেট, ময়মনসিংহ, বিভাগের DIG, প্রেসিডেন্ট/সেক্রেটারী সড়ক পরিবহন কর্মচারী ফেডারেশন, সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি এবং খুলনা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

আদালত শুনানী শেষে নি¤েœাক্ত অন্তবর্তিকালীন আদেশ প্রদান করেছেন :-

১। বিবাদীদেরকে বাংলাদেশের সকল সড়কে যানবাহন চলাচলের স্বাবাভিক অবস্থা নিশ্চিত করতে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন এবং ২ সপ্তাহের মধ্যে আদালতে Compliance রপোর্ট দাখিল করতে নির্দেশ।

DAG আদালতে ধর্মঘট প্রত্যাহারের বিষয় অবহিত করলে রীট পিটিশনার এর আইনজীবী অন্যান্য ৪টি আবেদন আদালতে উপস্থাপন করেননি। বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এডভোকেট মনজিল মোরসেদ। সরকার পক্ষে ছিলেন উঅএ অমিত তালুকদার।

বার্তা প্রেরক

HRPB ডেস্ক 

এডভোকেট, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট

তারিখঃ ০১.০৩.২০১৭